সেইসব অন্ধকার

লেখক: তসলিমা নাসরিন

ক্যাটাগরি: জীবনী

সেই সব অন্ধকার – তসলিমা নাসরিন এর লেখা একটি বাংলা নিষিদ্ধ বই। আবার কিছু কিছু বই আছে যা সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের মনে ঘৃণা উৎপাদন করার কারণে নিষিদ্ধ হয়। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের পছন্দ হলেও শাসকগোষ্ঠীর রোষানলে পড়ে অনেক বই নিষিদ্ধ হয়। বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনে 'বিদ্রোহী' কবি কাজী নজরুলের একাধিক বই নিষিদ্ধ হয়েছিল, পত্রিকা নিষিদ্ধ হয়েছিল, কবিতা নিষিদ্ধ হয়েছিল; এমনকি একটি কবিতার জন্য পুরো বই নিষিদ্ধ হয়েছিল এবং অনেকগুলো বই নিষিদ্ধ হওয়ার বিবেচনায় ছিল। যাদের লেখাকে বৃটিশরা ভয় করত, তাদের মাঝে নজরুল ছিল অন্যতম। তাই অন্য কোন লেখকের এতো বই বা লেখা নিষিদ্ধ  হয় নাই। নজরুলের যে গ্রন্থটি প্রথম সরকারি রোষের কবলে পড়ে তা হলো তারপ্রবন্ধ সঙ্কলন যুগবাণী। ১৯২২ সালে বাংলা সরকার ফৌজদারি বিধির ৯৯(এ) ধারানুসারে বইটি বাজেয়াপ্ত এবং গেজেট বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তা নিষিদ্ধ করে। সরকারি ফাইলে প্রাপ্ত তথ্য থেকে জানা যায়, বইটি বাজেয়াপ্ত হওয়ার ২০ বছর পরও সরকারি মহলে বইটি নিয়ে যথেষ্ট শঙ্কা ছিল। গোটা বিশ্বে সাম্রাজ্যবাদীরা যখন বন্দুকের নল উঁচিয়ে চর দখলের লড়াইয়ে ব্যস্ত ঠিক সেই মুহুর্তে নজরুলের মত এক বিদ্রোহীর আত্বপ্রকাশটা অস্বাভাবিক কোন ঘটনা ছিল না। 'যুগবাণী' নিষিদ্ধ হওয়ার বছর দুয়েকের ভেতরই ১৯২৪ সালের ২২ অক্টোবর নিষিদ্ধ হয় নজরুলের কবিতার বই 'বিষের বাঁশি'। 'বিষের বাঁশি' বাজেয়াপ্ত হওয়ার কিছুদিন পর 'ভাঙ্গার গান' নিষিদ্ধ হয়। 'ভাঙ্গার গানে'র কবিতাগুলো দারুন আলোড়ন সৃষ্টি করেছিলো। নজরুলের নিষিদ্ধ বই পড়ার জন্যে তরুনদের মধ্যে বেশ উৎসাহ দেখা দিয়েছিল।



সেইসব অন্ধকার
বইটির রিভিউ দিন

রিভিউ দিন